Muntakhab Hadith

 
 
SIFAT
Ilm and Dhikr  
SECTION
Ilm  
Type
Hadith  
SERIAL NUMBER
34  
الحديث فى العربى
عَنْ عُمَر بْنُ الْخَطَّابِ رَضِيَ اللهُ عَنْهُ قَالَ: بَيْنَا نَحْنُ عِنْدَ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ذَاتَ يَوْمٍ إِذْ طَلَعَ عَلَيْنَا رَجُلٌ شَدِيدُ بَيَاضِ الثِّيَابِ شَدِيدُ سَوَادِ الشَّعَرِ لَا يُرَى عَلَيْهِ أَثَرُ السَّفَرِ وَلَا يَعْرِفُهُ مِنَّا أَحَدٌ حَتَّى جَلَسَ إِلَى النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَأَسْنَدَ رُكْبَتَيْهِ إِلَى رُكْبَتَيْهِ وَوَضَعَ كَفَّيْهِ عَلَى فَخِذَيْهِ وَقَالَ يَا مُحَمَّدُ أَخْبِرْنِي عَنْ الْإِسْلَامِ فَقَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ الْإِسْلَامُ أَنْ تَشْهَدَ أَنْ لَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ وَأَنَّ مُحَمَّدًا رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَتُقِيمَ الصَّلَاةَ وَتُؤْتِيَ الزَّكَاةَ وَتَصُومَ رَمَضَانَ وَتَحُجَّ الْبَيْتَ إِنْ اسْتَطَعْتَ إِلَيْهِ سَبِيلًا قَالَ صَدَقْتَ قَالَ فَعَجِبْنَا لَهُ يَسْأَلُهُ وَيُصَدِّقُهُ قَالَ فَأَخْبِرْنِي عَنْ الْإِيمَانِ؟ قَالَ: أَنْ تُؤْمِنَ بِاللَّهِ وَمَلَائِكَتِهِ وَكُتُبِهِ وَرُسُلِهِ وَالْيَوْمِ الْآخِرِ وَتُؤْمِنَ بِالْقَدَرِ خَيْرِهِ وَشَرِّهِ قَالَ صَدَقْتَ قَالَ فَأَخْبِرْنِي عَنْ الْإِحْسَانِ؟ قَالَ: أَنْ تَعْبُدَ اللَّهَ كَأَنَّكَ تَرَاهُ فَإِنْ لَمْ تَكُنْ تَرَاهُ فَإِنَّهُ يَرَاكَ قَالَ فَأَخْبِرْنِي عَنْ السَّاعَةِ؟ قَالَ: مَا الْمَسْئُولُ عَنْهَا بِأَعْلَمَ مِنْ السَّائِلِ قَالَ فَأَخْبِرْنِي عَنْ أَمَارَتِهَا؟ قَالَ: أَنْ تَلِدَ الْأَمَةُ رَبَّتَهَا وَأَنْ تَرَى الْحُفَاةَ الْعُرَاةَ الْعَالَةَ رِعَاءَ الشَّاءِ يَتَطَاوَلُونَ فِي الْبُنْيَانِ قَالَ: ثُمَّ انْطَلَقَ فَلَبِثْتُ مَلِيًّا ثُمَّ قَالَ لِي يَا عُمَرُ أَتَدْرِي مَنْ السَّائِلُ؟ قُلْتُ اللَّهُ وَرَسُولُهُ أَعْلَمُ, قَالَ فَإِنَّهُ جِبْرِيلُ أَتَاكُمْ يُعَلِّمُكُمْ دِينَكُمْ (رواه مسلم  
হাদিস বাংলা
হযরত ওমর ইবনে খাত্তাব (রাযিঃ) বলেন, একদিন আমরা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের খেদমতে বসিয়াছিলাম । হঠাৎ এক ব্যক্তি আসিল । যাহার পোশাক অত্যন্ত সাদা এবং চুল অত্যাধিক কাল ছিল । না তাহার বেশভূষায় কোন সফরের চিহ্ন ছিল (যাহা দ্বারা বুঝা যাইত যে, এই ব্যক্তি কোন মুসাফির) আর না আমাদের কেহ তাহাকে চিনিতেছিল (যাহাতে বুঝা যাইত যে, সে মদীনার বাসিন্দা) । যাহাই হোক সে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের এত নিকটবর্তী হইয়া বসিল যে, নিজের হাঁটু তাঁহার হাঁটুর সহিত লাগাইয়া দিল এবং নিজের উভয় হাত আপন উভয় উরুর উপর রাখিল । অতঃপর আরজ করিল, হে মুহাম্মাদ, আমাকে বলুন, ইসলাম কি? রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এরশাদ করিলেন, ইসলাম (এর আরকান) এই যে, তুমি (মুখ ও অন্তর দিয়া) এই সাক্ষ্য দিবে যে, আল্লাহ তায়ালা ব্যতীত আর কোন সত্তা এবাদত ও বন্দেগীর উপযুক্ত নাই, এবং মুহাম্মাদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) আল্লাহ তায়ালার রাসূল, নামায আদায় করিবে, যাকাত প্রদান করিবে, রমযান মাসে রোযা রাখিবে এবং যদি সামর্থ্য থাকে তবে বাইতুল্লার হজ্জ করিবে । ইহা শুনিয়া সে ব্যক্তি বলিল, আপনি সত্য বলিয়াছেন । হযরত ওমর (রাযিঃ) বলেন, আমরা এই ব্যক্তির কথায় আশ্চর্যবোধ করিলাম, কারণ সে প্রশ্ন করিতেছে (যেন সে জানে না) । আবার সে সত্যায়ন করিতেছে (যেন পূর্ব হইতেই জানে) । তারপর সে ব্যক্তি আরজ করিল, আমাকে বলুন, ঈমান কি? তিনি এরশাদ করিলেন, ঈমান এই যে, তুমি আল্লাহ তায়ালাকে তাঁহার ফেরেশতাগণকে, তাঁহার কিতাবসমূহকে, তাঁহার রাসূলগণকে এবং কেয়ামতের দিনকে অন্তর দ্বারা স্বীকার কর এবং ভালমন্দ তকদীরের উপর বিশ্বাস রাখ । সে ব্যক্তি আরজ করিল, আপনি সত্য বলিয়াছেন । পুনরায় সেই ব্যক্তি আরজ করিল, আমাকে বলুন এহসান কি? তিনি এরশাদ করিলেন, এহসান এই যে, তুমি আল্লাহ তায়ালার এবাদত ও বন্দেগী এমনভাবে কর যেন তুমি আল্লাহ তায়ালাকে দেখিতেছ, আর যদি এই অবস্থা নসীব না হয় তবে এতটুকু তো ধ্যান কর যে, আল্লাহ তায়ালা তোমাকে দেখিতেছেন । অতঃপর সে ব্যক্তি আরজ করিল, আমাকে কেয়ামত সম্পর্কে বলুন, (যে কবে আসিবে?) । তিনি এরশাদ করিলেন, এই ব্যাপারে উত্তরদাতা প্রশ্নকারী অপেক্ষা বেশী জানে না । অর্থাৎ এই ব্যাপারে আমার এলেম তোমার অপেক্ষা বেশী নয় । সে ব্যক্তি আরজ করিল, তবে আমাকে উহার কিছু আলামতই বলিয়া দিন । তিনি এরশাদ করিলেন, (উহার একটি আরামত তো এই যে,) বাঁদী এমন মেয়ে প্রসব করিবে যে তাহার মনিব হইবে । আর (দ্বিতীয় আলামত এই যে,) তুমি দেখিবে যে, যাহাদের পায়ে জুতা নাই, শরীরে কাপড় নাই, গরীব, বকরী চরানেওয়ালা, তাহারা বড় বড় দালান বানানোর ব্যাপারে একে অপর হইতে অগ্রগামী হইবার চেষ্টা করিবে । হযরত ওমর (রাযিঃ) বলেন, অতঃপর সে ব্যক্তি চলিয়া গেল । আমি কিছুক্ষণ অপেক্ষা করিলাম (এবং আগত ব্যক্তি সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করিলাম না) । তারপর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নিজেই আমাকে জিজ্ঞাসা করিলেন, ওমর,জান কি? এই প্রশ্নকারী ব্যক্তি কে ছিল? আমি আরজ করিলাম, আল্লাহ ও তাঁহার রাসূলই ভার জানেন । রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এরশাদ করিলেন, তিনি জিবরাঈল ছিলেন, তোমাদের নিকট তোমাদের দ্বীন শিক্ষা দেওয়ার জন্য আসিয়াছিলেন । (মুসলিম) ফায়দাঃ হাদীস শরীফে কেয়ামতের আলামতের মধ্যে ‘বাদী এমন মেয়ে প্রসব করিবে, যে তাহার মনিব হইবে বলা হইয়াছে । ইহার এক অর্থ এই যে, কেয়ামতের নিকটবর্তী সময়ে পিতামাতার নাফরমানী ব্যাপক হইয়া যাইবে । এমনকি মেয়েরা যাহাদের স্বভাব মায়ের আনুগত্য বেশী হইয়া থাকে তাহারাও শুধু মায়ের নাফরমানই হইবে না বরং উহার বিপরীত তাহাদের উপর এমনভাবে হুকুমে চালাইবে যেমনভাবে একজন মুনিব আপন বাঁদীর উপর চালাইয়া থাকে । এই বিষয়কেই রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এইভাবে ব্যক্ত করিয়াছেন যে, মহিলা এমন মেয়ে প্রসব করিবে যে তাহার মনিব হইবে । দ্বিতীয় আলামতের অর্থ এই যে, কেয়ামতের নিকটবর্তী সময়ে মালদৌলত এমন লোকদের হাতে আসিবে যাহারা উহার উপযুক্ত নয় । উঁচা উঁচা দালান বানানো তাহাদের অভিরুচি হইবে এবং উহাতে একে অপর হইতে অগ্রগামী হইবার চেষ্টা করিবে । (মাআরিফে হাদীস)   
HADITH ENGLISH
Umar ibnil-Khattab Radiyallahu 'anhu narrates that one day while we were sitting with Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam, a man with extremely white clothing and very black hair came to us. No signs of travel were visible on him and none of us recognised him. Sitting down close to Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam, resting his knees against his and placing his palms on his own thighs, he said: O Muhammad! Tell me about Islam. Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam replied: Islam is to testify that none is worthy of worship but Allah, and Muhammad is the Messenger of Allah, to establish Salat, to pay Zakat, to fast in Ramadan, and to perform Hajj to Baitullah, provided you have resources for it. The man said: You have spoken the truth. 'Umar Radiyallahu 'anhu said: We were amazed at his asking the question and endorsing the answer. Then he said: Tell me about Iman (faith)? Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam said: Iman is to believe in Allah, His angels, His books, His Messengers, and the Last Day, and to believe in the Divine Destiny - both good and bad of it. He said: You have spoken the truth. And then asked: Tell me about Ihsan? Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam said: Ihsan is to worship Allah as though you are seeing Him; and even if you do not see Him, He certainly sees you. Then he said: Tell me about the Hour? Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam replied: The one who is asked about it knows no more than the one who is asking. He said: Then tell me about its signs. Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam said: That a slave-girl will give birth to her mistress; and you will see barefooted, naked and destitute shepherds competing with one another in constructing lofty buildings. 'Umar Radiyallahu 'anhu said: Then he went away and I stayed for a while. Then, Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam asked: O 'Umar! Do you know who the questioner was? I said: Allah and His Messenger know best. He said: He was Jibrail, who came to teach you your Deen (Islam). (Muslim)  
 
 
 
previous   Next