Muntakhab Hadith

 
 
SIFAT
Salah  
SECTION
Obligatory Prayer  
Type
Hadith  
SERIAL NUMBER
28  
الحديث فى العربى
عَنِ السَّائِبِ عَنْ عَلِيٍّ،رَضِىَ اللهُ عَنْهُماَ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لَمَّا زَوَّجَهُ فَاطِمَةَ بَعَثَ مَعَهُ بِخَمِيلَةٍ، وَوِسَادَةٍ، مِنْ أَدَمٍ حَشْوُهَا لِيفٌ وَرَحَيَيْنِ وَسِقَاءٍ وَجَرَّتَيْنِ، فَقَالَ عَلِيٌّ لِفَاطِمَةَ ذَاتَ يَوْمٍ: وَاللَّهِ لَقَدْ سَنَوْتُ حَتَّى لَقَدِ اشْتَكَيْتُ صَدْرِي، قَالَ: وَقَدْ جَاءَ اللَّهُ أَبَاكِ بِسَبْيٍ، فَاذْهَبِي فَاسْتَخْدِمِيهِ، فَقَالَتْ: وَأَنَا وَاللَّهِ قَدْ طَحَنْتُ حَتَّى مَجَلَتْ يَدَايَ، فَأَتَتِ النَّبِيَّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، فَقَالَ: مَا جَاءَ بِكِ أَيْ بُنَيَّةُ؟ قَالَتْ: جِئْتُ لِأُسَلِّمَ عَلَيْكَ، وَاسْتَحْيَتْ أَنْ تَسْأَلَهُ وَرَجَعَتْ، فَقَالَ: مَا فَعَلْتِ؟ قَالَتْ: اسْتَحْيَيْتُ أَنْ أَسْأَلَهُ، فَأَتَيْنَاهُ جَمِيعًا، فَقَالَ عَلِيٌّ: يَا رَسُولَ اللَّهِ ، وَاللَّهِ لَقَدْ سَنَوْتُ حَتَّى اشْتَكَيْتُ صَدْرِي، وَقَالَتْ فَاطِمَةُ: قَدْ طَحَنْتُ حَتَّى مَجَلَتْ يَدَايَ، وَقَدْ جَاءَكَ اللَّهُ بِسَبْيٍ وَسَعَةٍ فَأَخْدِمْنَا، فَقَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: وَاللَّهِ لَا أُعْطِيكُمَا وَأَدَعُ أَهْلَ الصُّفَّةِ تَطْوَى بُطُونُهُمْ، لَا أَجِدُ مَا أُنْفِقُ عَلَيْهِمْ، وَلَكِنِّي أَبِيعُهُمْ وَأُنْفِقُ عَلَيْهِمْ أَثْمَانَهُمْ» فَرَجَعَا، فَأَتَاهُمَا النَّبِيُّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَقَدْ دَخَلَا فِي قَطِيفَتِهِمَا، إِذَا غَطَّتْ رُءُوسَهُمَا تَكَشَّفَتْ أَقْدَامُهُمَا، وَإِذَا غَطَّيَا أَقْدَامَهُمَا تَكَشَّفَتْ رُءُوسُهُمَا، فَثَارَا، فَقَالَ: «مَكَانَكُمَا» ثُمَّ قَالَ: «أَلَا أُخْبِرُكُمَا بِخَيْرٍ مِمَّا سَأَلْتُمَانِي؟» قَالَا: بَلَى. فَقَالَ: «كَلِمَاتٌ عَلَّمَنِيهِنَّ جِبْرِيلُ ، فَقَالَ: تُسَبِّحَانِ فِي دُبُرِ كُلِّ صَلَاةٍ عَشْرًا، وَتَحْمَدَانِ عَشْرًا، وَتُكَبِّرَانِ عَشْرًا، وَإِذَا أَوَيْتُمَا إِلَى فِرَاشِكُمَا فَسَبِّحَا ثَلَاثًا وَثَلَاثِينَ، وَاحْمَدَا ثَلَاثًا وَثَلَاثِينَ، وَكَبِّرَا أَرْبَعًا وَثَلَاثِينَ» قَالَ: «فَوَ اللَّهِ مَا تَرَكْتُهُنَّ مُنْذُ عَلَّمَنِيهِنَّ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: فَقَالَ لَهُ ابْنُ الْكَوَّاءِ: وَلَا لَيْلَةَ صِفِّينَ؟ فَقَالَ: قَاتَلَكُمِ اللَّهُ يَا أَهْلَ الْعِرَاقِ، نَعَمْ، وَلَا لَيْلَةَ صِفِّينَ (رواه احمد  
হাদিস বাংলা
হযরত সায়েব (রায়িঃ) বলেন, হযরত আলী (রায়িঃ) বলিয়াছেন, রাসূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমার সহিত হযরত ফাতেমা (রায়িঃ)কে বিবাহ দেন তখন হযরত ফাতেমা (রায়িঃ) এর সঙ্গে এক্ টি চাদর, এক টি চামড়ার বালিশ যাহার মধ্যে খেজুরের ছাল ভর্তি ছিল, দুইটি যাঁতা, এক টি মশক ও দুইটি মটকা দিলেন। হযরত আলী (রায়িঃ) বলেন, আমি একদিন হযরত ফাতেমা (রায়িঃ) কে বলিলাম, আল্লাহর কসম, কুয়া হইতে বালতি টানিতে টানিতে আমার বুক ব্যাথা হইয়া গিয়াছে, তোমার পিতার নিকট আল্লাহ তায়ালা কিছূ কয়েদী পাঠাইয়াছেন। তাঁহার খেদমতে যাইয়া একজন খাদেম চাহিয়া লও। হযরত ফাতেমা (রায়িঃ) বলিলেন, যাঁতা চালানোর দরুন আমার হাতেও গিঁট পড়িয়া গিয়াছে। সুতরাং তিনি রাসূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের খেদমতে হাজির হইলেন। রাসূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জিজ্ঞাসা করিলেন, হে আমার প্রিয় বেটি, কি মনে করিয়া আসিয়াছ? হযরত ফাতেমা (রায়িঃ) বলিলেন, সালাম করিতে আসিয়াছি। লজ্জার দরুন প্রয়োজনের কথা বলিতে পারিলেন না। এমনিই ফিরিয়া আসিলেন। হযরত আলী (রায়িঃ) বলেন, আমি তাহাকে জিজ্ঞাসা করিলাম, কি করিয়াছ? তিনি বলিলেন, লজ্জার দরুন খাদেম চাহিতে পারি নাই। অতঃপর আমরা উভয়ে একত্রে রাসূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের খেদমতে হাজির হইলাম। আমি আরজ করিলাম, ইয়া রাসূলাল্লাহ কুয়া হইতে পানি টানিতে টানিতে আমার বুকে ব্যাথা হইয়া গিয়াছে। হযরত ফাতেমা (রায়িঃ) আরজ করিলেন, যাঁতা ঘুরাইতে ঘুরাইতে আমার হাতে গিঁট পড়িয়া গিয়াছে। আল্লাহ তায়ালা আপনার নিকট কয়েদী পাঠাইয়াছেন এবং কিছু সচ্ছলতা দান করিয়াছেন। কাজেই আমাদিগকেও একজন খাদেম দান করুন। রাসূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এরশাদ করিয়াছেন, আল্লাহর কসম, আহলে সুফফার লোকজন ক্ষূধার কারনে তাহাদের পেটের চামড়ায় ভাঁজ পড়িয়া রহিয়াছে। তাহাদের উপর খরচ করার মত আমার নিকট আর কিছু নাই, কাজেই এই সকল গোলাম বিক্রয় করিয়া উহার মূল্য সুফফার লোকদের উপর ব্যায় করিব। ইহা শুনিয়া আমরা উভয়ে ফিরিয়া আসিলাম। রাত্রে আমরা দুইজন ছোট একটি কম্বল জড়াইয়া শুইয়াছিলাম। যখন উহা দ্বারা মাথা ঢাকিতাম তখন পা খুলিয়া যাইত, আর যখন পা ঢাকিতাম মাথা খুলিয়া যাইত। এমন সময় রাসূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের নিকট আসিলেন। আমরা তারাতারি উঠিতে চাহিলাম, কিন্তু রাসূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলিলেন, তোমরা নিজেদের জায়গায় শুইয়া থাক। তারপর বলিলেন, তোমরা আমার নিকট যে খাদেম চাহিয়াছ, তোমাদিগকে উহা হইতে উত্তম জিনিস বলিয়া দিব কি? আমরা আরজ করিলাম, অবশ্যই বলিয়া দিন। এরশাদ করিলেন, এই কয়েকটি কলেমা জিবরাঈল (আঃ) আমাকে শিখাইয়াছেন। তোমরা উভয়ে প্রত্যেক নামাযের পর দশবার সুবাহানাল্লাহ, তেত্রিশবার আলহামদুলিল্লাহ, দশবার আল্লাহু আকবার পড়িয়া লইও। আর যখন বিছানায় শুইয়া পড় তখন তেত্রিশবার সুবাহানাল্লাহ, তেত্রিশবার আলহামদুলিল্লাহ এবং চৌত্রিশবার আল্লাহু আকবার পড়িও। হযরত আলী (রায়িঃ) বলেন, আল্লাহর কসম, যেদিন হইতে রাসূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাকে এই কলেমাগুলি শিক্ষা দিয়াছেন সেদিন হইতে আমি কখনও উহা ছাড়ি নাই। ইবনে কাওয়া (রহঃ) হযরত আলী (রায়িঃ)কে জিজ্ঞাসা করিলেন, সিফফীনের যুদ্ধের রাত্রেও কি আপনি উহা পড়া ছাড়েন নাই? তিনি বলিলেন, হে ইরাকবাসী, তোমার উপর আল্লাহর মার পড়ুক, সিফফীনের রাত্রেও আমি এই কলেমাগুলি ছাড়ি নাই। (মুসনাদে আহমাদ)   
HADITH ENGLISH
Saib Radiyallahu 'anhu narrates from 'Ali Radiyallahu 'anhu that when Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam married him to Fatima Radiyallahu 'anha, she was seen-off with (a dowry of) a bed sheet, a leather pillow filled with date-bark, two grindstones, a leather water bag, and two large earthen pots. 'Ali Radiyallahu 'anhu one day said to Fatima Radiyallahu 'anha: I swear by Allah! Due to pulling of buckets from the well, I feel pain in my chest. Allah has sent some prisoners to your father, go and ask him for a servant. Fatima Radiyallahu 'anha said: My hands are also calloused due to turning the grindstone. At that, she went to Nabi Sallallahu 'alaihi wasallam. He asked: Dear daughter, what brought you here? She said: 'I have come to offer my Salam'. But due to her shyness, she could not ask him anything and returned. 'Ali Radiyallahu 'anhu asked her: What happened? She said: I felt shy to ask him. Then we went to Nabi Sallallahu 'alaihi wasallam together. 'Ali Radiyallahu 'anhu said: Rasulallah! Due to drawing water from the well I feel pain in my chest. Fatima Radiyallahu 'anha said: Due to frequently turning the grindstone my hands are calloused; Allah has sent you slaves and granted some ease; please give us a servant. Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam said: I swear by Allah! I will not give you; the people of Suffah are suffering pangs of hunger, and I have nothing to spend on them. Therefore, I will sell these slaves and spend that money on the people of Suffah. So we returned. At night both of us were sleeping in a small blanket such that when our heads were covered, our legs used to bare, and when our legs were covered, our heads used to be exposed. Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam came to us. Both of us started to get up hurriedly. He said: Remain at your place. You asked for a servant, should I not tell you something better than what you asked? We said: Do tell us. He said: Jibrail 'Alaihis Salam has taught me a few words. Both of you say after every Salat, ten times Subhanallah (Glory be to Allah who is above all faults), ten times Alhamdulillah (Praise be to Allah), and ten times Allahuakbar (Allah is the Greatest). And when you lie down on your bed, then say 33 times Subhanalldh, 33 times Alhamdulillah and 33 times Allahuakbar. 'Ali Radiyallahu 'anhu said: I swear by Allah! Ever since Rasullullah Sallallahu 'alaihi wasallam taught me these words, I have never forgotten to say them. Ibnul Kawa' Rahimahullah asked him: And not even on the night of the Battle of Siffin? He said: May Allah curse you! O people of Iraq! Yes, and not even on the night of the Battle of Siffin. (Musnad Ahmad)  
 
 
 
previous   Next